খেলাধুলা

মিডিয়ায় যে কথা গোপন রাখলেন টাইগার কোচ


জয় দিয়ে বিশ্বকাপযাত্রা শুরু করেছে বাংলাদেশ। শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দুর্দান্তভাবে জয় তুলে নেয় টাইগাররা। অপরদিকে, বিশ্বকাপে দুর্দান্ত জয় দিয়ে আসর শুরু করেছে নিউজিল্যান্ডও। এই টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে রীতিমতো বিধ্বস্ত করেছে কিউইরা। তাই দু’দলই নিজেদের ওপর আস্থা রেখে মাঠে নামবে।

এদিকে, বৃষ্টির কারণে মঙ্গলবার (৫ জুন) ওভালের মাঠ ছিল ভেজা। সে কারণেই ইনডোরেই প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দুই দল। প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়া দুটি দলই তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে পেতে চাইবে।

সর্বশেষ সিরিজে কিউইদের বিরুদ্ধে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল বাংলাদেশ। সেটা নিউজিল্যান্ডের মাটিতে। এই দলকে দুই-দু’বার হোয়াইটওয়াশ করার অভিজ্ঞতা আছে টাইগারদেরও। দুই দলই একে অপরের শক্তিমত্তা ও দুর্বলতা সম্পর্কে খুব ভালো করেই জানে। নিজেদের মাঠে দুই দলই সেরা। কিন্তু নিরপেক্ষ ভেন্যুতে?

এখানে এগিয়ে বাংলাদেশই। কেন না ২০১৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ওয়েলসে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েই সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিলেন মাশরাফিরা। সেই ম্যাচটিই বাংলাদেশকে উজ্জীবিত করছে। সেই প্রথম ম্যাচে পাওয়া জয়ের আত্মবিশ্বাস তো আছেই!

ইংলিশ কমিশনে এই নিউজিল্যান্ড খুবই ভয়ঙ্কর। দুর্দান্ত বেশ কয়েকজন পেসার রয়েছে তাদের দলে। আছে হার্ড হিটার ব্যাটসম্যানও। প্রথম ম্যাচে তারা কার্ডিফে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়েছে। বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে তারা ভারতকে উড়িয়ে দিয়েছিল।

মধুর স্মৃতি আছে বাংলাদেশেরও। আয়ারল্যান্ড সিরিজে যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পায়নি, সেই দলই কিন্তু শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে কিউইদের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে।

তাই নিউজিল্যান্ডকে নিয়ে মোটেও ভাবছেন না বাংলাদেশের কোচ স্টিভ রোডস। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছি। তাদের বোলিং লাইনআপ ভয়ঙ্কর ছিল। তাই এই ম্যাচ নিয়ে ভাবনার কিছু নেই। তবে নিউজিল্যান্ড দক্ষিণ আফ্রিকার মতোই শক্তিশালী দল। তাদের বোল্টের মতো উইকেট শিকারী বোলার আছে। কেন উইলিয়ামসনের মতো তারকা ব্যাটসম্যান আছে। ফিল্ডিংয়েও তারা দুর্দান্ত। তাই আমার মনে হয়, ম্যাচে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।’

নিউজিল্যান্ডের তারকা ব্যাটসম্যান টম লাথামও একই কথা বলেছেন গতকাল। তিনি বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ দারুন খেলেছে। আমরাও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভালো খেলেছি। জয়ের আত্মবিশ্বাস আমাদের আছে। তবে ম্যাচে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।’

গতকাল সংবাদ সম্মেলনের শেষ দিকে বাংলাদেশের কোচকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, একাদশে কারা কারা খেলছেন? উত্তরে স্টিভ রোডস বলেন, ‘একথা মিডিয়াকে বলবো না। একাদশে কারা খেলবে সেটা আমরা গোপন রাখছি। এটা আমাদের পরিকল্পনার অংশ। টিম মিটিংয়ে আমরা ঠিক করেছি কারা কারা খেলবে? সে কারণেই আমি এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারছি না!’