স্বাস্থ্য

যে তিনটি লক্ষণ বেশির ভাগ করোনা রোগীর মধ্যেই থাকে


করোনা এমন একটি ভাইরাস যা শ্বাসযন্ত্রে আক্রমণ করে। ফ্লুর মতো লক্ষণ, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া, পেশী ব্যথা থেকে শুরু করে রোগীদের মধ্যে প্রচুর লক্ষণ দেখা দেয়।

নির্দিষ্ট লক্ষণগুলো কেন এবং কীভাবে দেখা দেয় সে সম্পর্কে এখনও পুরোপুরি জানা যায়নি। তবে আমেরিকার রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) এর একটি ছোট্ট গবেষণায় দেখা গেছে, করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত প্রায় সব রোগীর তিনটি সাধারণ লক্ষণ ছিল। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

কাশি:
কাশি করোনাভাইরাসের সর্বাধিক সাধারণ লক্ষণ হিসেবে দেখা গেছে। করোনাভাইরাসের হালকা লক্ষণ ঠাণ্ডা বা ফ্লুর মতো শুরু হয়, তবে শুকনো কাশি দেখা দিলে সেটি উদ্বেগের কারণ হতে পারে। জরিপকৃতদের মধ্যে ৮০% শুকনো কাশির উপস্থিতি তাদের প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে রেকর্ড করেছেন।

জ্বর:
করোনাভাইরাস রোগীদের মধ্যে প্রচলিত দ্বিতীয় সাধারণ লক্ষণ হল জ্বর। সম্ভবত প্রদাহের ফলে এবং করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ২-১৪ দিন পরে এটি দেখা দিতে পারে। জ্বর অনেকরকম সংক্রমণের কারণে হতে পরে, তাই তিনদিনের বেশি জ্বরে ভুগলে এবং তা যদি ১০০ ডিগ্রির বেশি হয় তবে উদ্বিগ্ন হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।

শ্বাসকষ্ট:
শ্বাসকষ্ট বা অস্থিরতা বোধ করা সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের রেকর্ড করা তৃতীয় সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ ছিল। তবে, গবেষণা অনুসারে সংক্রমণের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে লক্ষণটি বেশি দেখা গিয়েছিল।

করোনাভাইরাস যেহেতু ওপরের শ্বাসযন্ত্রের ট্র্যাক্ট আক্রমণ করে, এটি বেশিরভাগ সময় শ্বাসনালীকে অবরুদ্ধ করে তোলে যা শ্বাসকষ্টের দিকে নিয়ে যায়। এই লক্ষণ দেখা দিলে কখনোই এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়।