পটুয়াখালী

খাস জমি বন্দোবস্ত দেওয়ার দাবী ও ভূয়া বন্দোবস্ত বাতিল করার দাবী


১৯৯২ সালের ১৬ ই পৌষ ১লা জানুয়ারি পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলার চর বাঁশবাড়িয়া,চর হাদী,চর শাহজালাল ও চর বোরহান বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশন ও বাংলাদেশ কিষাণী সভার নেতা কমরেড আবদুস সাত্তার খানের নেতৃত্বে ৮ হাজার পরিবার ৩০ হাজার লোক ২২ হাজার একর খাস জমিতে অবস্থান গ্রহন করেন।

দিবসটি স্মৃতিচারণ করার জন্য আজ ২রা জানুয়ারী ২০২১ ইং,রোজঃ শনিবার দিনব্যাপী চর বোরহানে সমাবেশ, মিছিল, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বেলা ১১টায় ভূমিহীন কৃষক-কিষাণী সমাবেশে আবদুল মালেক গাজীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কিষাণী সভার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও দশমিনা উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ সামসুন্নাহার খান ডলি আপা, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন চর বোরহান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নজির আহমেদ সর্দার, কৃষক নেতা জায়েদ ইকবাল খান, প্রাণ কৃষ্ণ দাস, ক্বারী মোঃ শহিদুল ইসলাম, কেরামত আলী গাজী, মোঃ আশ্রাফ গাজী, মোঃ মকবুল হাওলাদার, মোঃ সাহাবুদ্দিন আহমেদ প্রমূখ। সভার শুরুতেই কমরেড আবদুস সাত্তার খানসহ খাস জমি আন্দোলনে নিহত, আহত ও যারা মারা গিয়েছেন তাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করেন।

বক্তারা বলেন, উত্তর শাহজালাল ও দক্ষিণ শাহজালালসহ চর বোরহান এ বসবাসরত ভূমিহীন পরিবার আজ ও খাস জমি বন্দোবস্ত থেকো বঞ্চিত।

সমাবেশ থেকে বক্তারা নিম্নোক্ত দাবী তুলে ধরেনঃ
১। শাহজালাল এ বসবাসরত ভূমিহীন পরিবার এর মধ্যে খাস জমি বন্দোবস্ত দেওয়া হোক।
২। পটুয়াখালী ও ভোলা জেলার সীমানা নির্ধারন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান।
৩। দশমিনা-গলাচিপা আন্তঃসীমানা নির্ধারন করতে হবে।
৪। দশমিনা উপজেলার অন্তর্ভুক্ত নদীতে জেগে উঠা খাস জমি চর সামাদ,কালির চর,ভোলাইশিং,চর চাঙ্গা,লাল চর, চর আজমাইন, চর ভুতম,চর ফাতেমা,উত্তর চর বাশঁবাড়িয়াসহ বিভিন্ন চরে প্রকৃত ভূমিহীনদের মধ্যে খাস জমি বন্দোবস্ত দেওয়া দাবী জানান।
৫। বন বিভাগের আওতায় কৃষি খাস জমি ভূমিহীনদের মধ্যে বন্দোবস্ত দিতে হবে।
উল্লেখ্য ১৯৯১ সালে ২৭নভেম্বর দশমিনা উপজেলায় হাসপাতাল মাঠে ১৫ হাজার ভূমিহীন নারী-পুরুষের সমাবেশে খাস জমি দখলের ঘোষনা করা হয়। ১৯৯২ সালে ১লা জানুয়ারী ১৬ পৌষ পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলার চর বোরহান, চর হাদী,চর শাহজালাল ও চর বোরহান এ বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশন ও বাংলাদেশ কিষাণী সভার প্রতিষ্ঠাতা কমরেড আবদুস সাত্তার নেতৃত্বে ৮ হাজার পরিবার ৩০ হাজার লোক ২২ হাজার একর খাস জমিতে অবস্থান গ্রহণ করেন।

২০১৭ সালে ১৪ এপ্রিল পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় চর হাদীতে উপকূলী অঞ্চলসহ খাস জমি আন্দোলরত ভূমিহীনদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের সাবেক উপদেষ্টা, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। সম্মেলনে সর্বসম্মতিক্রমে প্রধান অতিথি প্রতি বছরের ২৭ নভেম্বর “ভূমি সংগ্রাম দিবস” পালিত হবে।

২০১৮ সালে ২৭ নভেম্বর জাতীয় পর্যায় ১ম ভূমি সংগ্রাম দিবস পালন করা হয়।এ বছর ও ২৭ নভেম্বর ৩য় বছর ভূমি সংগ্রাম দিবস পালিত হয়।