আইন ও আদালত

ফেনীতে অটোরিকশা চালক কালা মিয়া হত্যা কান্ডে ৩ জনের মৃত্যুদন্ড

  • 3
    Shares

ফেনীর ফুলগাজীতে অটোরিকশার চালক কালা মিয়া হত্যা মামলার তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে আরও এক জনকে। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক বেগম জেবুন্নেছা সোমবার দুপুরে এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন হুমায়ুন হাছান রাকীব, আবদুর রহমান মানিক ও আবু তৈয়ব বাবলু। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে সুমন চন্দ্র রায়কে।

এর মধ্যে কেবল আবদুর রহমান মানিকই গ্রেপ্তার আছেন; তার উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন বিচারক। অন্যরা এখনও পলাতক।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় খালাস দেয়া হয়েছে হত্যা মামলার ১৬ আসামিকে।খালাসপ্রাপ্ত অপর ১৬ জন হলেন মো: রাসেল, সোহাগ, আলমগীর হোসেন বাবু, মোশারফ হোসেন প্রকাশ মোশারফ , রুবেল মিয়া প্রকাশ রুবেল , দিদার হোসেন প্রকাশ রিপন প্রকাশ শিকদার , নুর মোহাম্মদ জুয়েল প্রকাশ জনি, মাঈন উদ্দিন প্রকাশ ঝিনুক, মোঃ জহির, সাফায়াত আহম্মদ পাটোয়ারী প্রকাশ রাকিব, হাছান ইমাম প্রকাশ হাসান, মো: সাফুল ইসলাম, মো: লোকমান হোসেন, মোঃ শরীফ প্রকাশ টিপু, তৌহিদ উল্লাহ, এনায়েত হোসেন প্রকাশ রাজু।

২০১০ সালের ১৮ নভেম্বর সন্ধ্যায় ফেনীর পরশুরাম থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ে মুন্সিরহাটের দিকে রওনা হন চালক মুলকত আহাম্মদ কালা মিয়া। রাতে বাড়ি না ফেরায় তাকে খুঁজতে বের হন পরিবারের সদস্যরা। মধ্যরাত ৩টার দিকে জগতপুর রোডের টুক্কু মিয়ার পুল থেকে মুলকতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় তার বড় ভাই ফখরুল আহাম্মদ মজুমদার ফুলগাজী থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওই থানার তৎকালীন ওসি সৈয়দুল মোস্তফা ২০১১ সালের ২৮ মে আদালতে ২০ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দেন। তাতে বলা হয়, অটোরিকশা ছিনতাইয়ের জন্যই তাকে হত্যা করেন আসামিরা। ২০১২ সালের ২৫ জুলাই অভিযোগ গঠন করে শুরু হয় বিচার।

এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে ১৫ জন আদালতে সাক্ষ্য দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি হাফেজ আহম্মদ জানান, মামলার মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন দণ্ড পাওয়া আসামিদের ৪০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশও দেয়া হয়।


  • 3
    Shares