ক্রিকেট

বিশ্বরেকর্ড গড়লেন জয়াবিক্রমা

  • 1
    Share

পাল্লেকেলের দ্বিতীয় টেস্টে ২০৯ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতল স্বাগতিক শ্রীলংকা। ৪৩৭ রানের তাড়ায় ২২৭ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশের ইনিংস।

পঞ্চম দিনে ২২ ওভারের মধ্যেই শেষ বাংলাদেশ। উইকেট হারিয়েছে ৫টি। আর রান যোগ হয়েছে মাত্র ৫০টি।

মূলত পাল্লেকেলের দ্বিতীয় টেস্টে অভিষিক্ত তরুণ স্পিনার জয়াবিক্রমার কাছেই হেরে গেছে বাংলাদেশ। আজ বাংলাদেশ দলকে প্রথম সেশনটাও পার করতে দেননি এই বাঁহাতি অর্থডক্স বোলার। তার ঘূর্ণিজাদুতে উড়ে গেলেন টাইগাররা।

৭১তম ওভারে তৃতীয় ও শেষ বলে দুটি উইকেট তুলে নিয়ে বাংলাদেশকে গুটিয়ে দেন। সেই ওভারের শেষ দিকের একমাত্র স্বীকৃত ব্যাটসম্যান মেহেদী হাসান মিরাজকে ফেরালে দেখার বিষয় ছিল ইনিংস কতদূর টেনে নিতে পারেন দুই টেলএন্ডার। কিন্তু মাত্র দুই বল পরেই সমাপ্তি ঘটে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসের।

৩ বল মোকাবিলা করে শেষ ব্যাটসম্যান আবু জায়েদ রাহী ফেরেন শূন্য রানে।

জায়েদের উইকেট দিয়ে বাংলাদেশের ২য় ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করলেন স্পিনার জয়াবিক্রমা। অভিষেক টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে ১১ উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

এমন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়ে শ্রীলংকার পক্ষে দারুণ এক রেকর্ড গড়েছেন জয়াবিক্রমা। অভিষেক ম্যাচে শ্রীলংকার হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এখন তিনিই।

২০১৮ সালে আকিলা ধনঞ্জয়ের করা ৮ উইকেটের রেকর্ড ভেঙেছেন জয়াবিক্রম। ধনঞ্জয়ের সেই রেকর্ডটিও ছিল বাংলাদেশের বিপক্ষে।

এত গেল দেশের হয়ে রেকর্ডের কথা। তবে এরই মধ্যে একটি বিশ্বরেকর্ডও নিজের করে নিলেন জয়াবিক্রম।

দুই ইনিংস মিলে তার শিকার ১৭৮ রানে ১১ উইকেট। বাঁহাতি স্পিনারদের মধ্যে এটিই অভিষেক ম্যাচে সেরা বোলিংয়ের বিশ্বরেকর্ড।

এ ছাড়া টেস্ট ক্রিকেটে ১৩ বছর পর অভিষেক ম্যাচে কোনো বোলার ১০-এর বেশি উইকেট শিকার করলেন।

তার বোলিং ফিগার ৩২-১০-৮৬-৫। প্রথম ইনিংসেও ৩২ ওভার করছেন জয়াবিক্রমা। ৯২ রান দিয়ে শিকার করেছেন ৬ উইকেট।


  • 1
    Share
Promote your Company or BusinessAdvertise with us

আপনার প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসায়ের প্রচার বা প্রসার করতে চান? দেশের জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যম ডেইজ বুলেটিন আপনার সেবায় নিয়োজিত। লক্ষ লক্ষ পাঠকের কাছে আপনার বিজ্ঞাপনটি পৌঁছে যাবে মুহূর্তেই।