আইন ও আদালত

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলেন রফিকুল ইসলাম মাদানী


আলোচিত শিশুবক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আজ শুক্রবার দুপুরে গাজীপুর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তাকে গতকাল র‌্যাবের তদন্ত কর্মকর্তা একদিনের রিমান্ড শেষে গাজীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ নাজমুননাহারের আদালতে হাজির করার পর তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারি কমিশনার (প্রসিকিউশন) শুভাশিষ ধর জানান, রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে গত ৭ এপ্রিল শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানীকে নেত্রকোনার নিজ বাড়ী থেকে আটক করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) গাছা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটকের সময় তার কাছ থেকে চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

তখন জিএমপির উপ পুলিশ কমিশনার (অপরাধ-দক্ষিণ) মোহাম্মদ ইলতুৎমিশ সাংবাদিক সম্মেলন করে জানান, রফিকুল ইসলাম মাদানীর মোবাইল জব্দ করে সেটি ফরেনসিক রিপোর্টের জন্য পাঠানো হয়। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা উক্ত মোবাইল ফোনে আপত্তিকর এডাল্ট কনটেন্ট অশ্লীল পর্নো দেখার প্রমাণ পেয়েছেন। তিনি নিয়মিত পর্নোগ্রাফি ভিডিও দেখাসহ রাষ্ট্রিবিরোধী বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। একারণে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১২ এর ৮(৫)(ক) ধারা যুক্ত করা হয়।

গত বৃহস্পতিবার আদালতের নির্দেশে রফিকুল ইসলামকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে একদিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কাশিমপুর কারাগারে ফেরত দেয়ার আগে আজ দুপুরে আদালতে হাজির করা হলে তিনি স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করেন বলে র‌্যাব জানায়। পরে তাকে পুনরায় কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে হস্তান্তর করা হয়েছে।


Promote your Company or BusinessAdvertise with us

আপনার প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসায়ের প্রচার বা প্রসার করতে চান? দেশের জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যম ডেইজ বুলেটিন আপনার সেবায় নিয়োজিত। লক্ষ লক্ষ পাঠকের কাছে আপনার বিজ্ঞাপনটি পৌঁছে যাবে মুহূর্তেই।