জাতীয়

টিকার দ্বিতীয় ডোজ দিয়েই বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হবে


করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন। টিকা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। শিগগিরই শিক্ষার্থীদের বিশেষ প্রক্রিয়ায় টিকাদানের কার্যক্রম শুরু হবে। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের জারি করা অনলাইন এবং সশরীরে পরীক্ষা নেওয়ার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

সোমবার বিকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে,‌ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেজন্য শিক্ষার্থীদের তথ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে।

টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে হলে থাকা শিক্ষার্থীরা অগ্রাধিকার পাবেন। হলে থাকা ১ লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে‌ ৯১ হাজার শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্রসহ তথ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে।

পরবর্তীতে টিকা পাওয়া সাপেক্ষে ধাপে ধাপে বাকি শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হবে। যেহেতু শিক্ষার্থীদের বয়স চল্লিশের কম এবং অনেকেরই জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তাই তাদের বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে পাঠানো তালিকা ধরে টিকা দেওয়া হবে। ‌

বৈঠকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে শিক্ষামন্ত্রীকে জানান, এখন যত টিকা আসবে, সেখান‌ থেকে ফ্রন্টলাইনারদের সঙ্গে শিক্ষার্থীরাও অগ্রাধিকার পাবেন।যুগান্তর


Promote your Company or BusinessAdvertise with us

আপনার প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসায়ের প্রচার বা প্রসার করতে চান? দেশের জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যম ডেইজ বুলেটিন আপনার সেবায় নিয়োজিত। লক্ষ লক্ষ পাঠকের কাছে আপনার বিজ্ঞাপনটি পৌঁছে যাবে মুহূর্তেই।