ক্রিকেটখেলাধুলা

বাংলাদেশের স্মরণীয় জয়


সেঞ্চুরিয়নে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে খেলতে নামার উপলক্ষটা স্মরণীয় করে রাখল বাংলাদেশ। তিন বিভাগেই উজ্জীবিত পারফরম্যান্সে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে সফরকারীরা জিতল ৩৮ রানে।

ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ ৭ উইকেট হারিয়ে তোলে ৩১৪ রান। রাসি ফন ডার ডাসেন ও ডেভিড মিলারের দারুণ দুটি ইনিংসের পরও স্বাগতিকরা থমকে যায় ২৭৬ রানে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ২০ ওয়ানডেতে কখনও যেখানে তিনশ ছুঁতে পারেনি বাংলাদেশ, সেখানে তারা পরের দুই ম্যাচেই তা করে দেখাল। দুটিতেই পেল জয়ের স্বাদ। দুই দলের আগের দেখায় ২০১৯ বিশ্বকাপে লন্ডনের দা ওভালে বাংলাদেশ জিতেছিল ৩৩০ রানের পুঁজি গড়ে।

২০১৭ সালে কিম্বারলিতে ৭ উইকেটে ২৭৮ রান ছিল দেশটিতে বাংলাদেশের আগের সর্বোচ্চ।

মন্থর ব্যাটিংয়ে শুরু করলেও ৯৫ রানের উদ্বোধনী জুটিতে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন তামিম ও লিটন দাস। লিটন করেন ৫০ রান। অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ৪১।

ক্রিকেট উপভোগ করছেন না বলে শুরুতে এই সফরে যেতে চাননি যিনি, সেই সাকিব আল হাসানের ব্যাটেই মূলত গতি পায় বাংলাদেশের ইনিংস। ৬৪ বলে ৭ চার ও ৩ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৭৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলে ম্যাচে সেরা তিনিই। ক্যারিয়ারের প্রথম ওয়ানডে ফিফটিতে ৪৪ বলে ৫০ রান করেন ইয়াসির আলি চৌধুরি।

পরে তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজদের দারুণ বোলিংয়ে ফুরাল দীর্ঘ অপেক্ষা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তাদের মাঠে তিন সংস্করণ মিলিয়ে ২০ ম্যাচ খেলে অবশেষে দেখা মিলল প্রথম জয়ের।

শেষের দারুণ বোলিংয়ে ৪ উইকেট নিয়ে দলের সফলতম বোলার মিরাজ। তবে সেরা বোলার নিঃসন্দেহে তাসকিন। ১০ ওভারে ৩৬ রানে এই পেসারের প্রাপ্তি ৩টি।

আগামী রোববার জোহানেসবার্গে বাংলাদেশের সামনে আরেক অর্জনের হাতছানি, দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম সিরিজ জয়!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ৩১৪/৭ (তামিম ৪১, লিটন ৫০, সাকিব ৭৭, মুশফিক ৯, ইয়াসির ৫০, মাহমুদউল্লাহ ২৫, আফিফ ১৭, মিরাজ ১৯*, তাসকিন ৭*; এনগিডি ১০-১-৭৫-১, রাবাদা ১০-০-৫৭-১, ইয়ানসেন ১০-১-৫৭-২, মহারাজ ১০-০-৫৬-২, ফেলুকওয়ায়ো ১০-১-৬৩-১)

দক্ষিণ আফ্রিকা: ৪৮.৫ ওভারে ২৭৬ (ভেরেইনা ২১, মালান ৪, বাভুমা ৩১, মারক্রাম ০, ফন ডার ডাসেন ৮৬, মিলার ৭৯, ফেলুকওয়ায়ো ২, ইয়ানসেন ২, রাবাদা ১, মহারাজ ২৩, এনগিডি ১৫*; সাকিব ১০-০-৫৪-০, শরিফুল ৮-০-৪৭-২, তাসকিন ১০-১-৩৬-৩, মুস্তাফিজ ১০-০-৫০-০, মিরাজ ৯-০-৬১-৪, মাহমুদউল্লাহ ১.৫-০-২৪-১)

ফল: বাংলাদেশ ৩৮ রানে জয়ী

সিরিজ: তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি শেষে বাংলাদেশ ১-০ তে এগিয়ে

ম্যান অব দা ম্যাচ: সাকিব আল হাসান